Loading...

মেদিনীপুর, ২৮ জুলাই: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পাল্টা সভায় আশানুরূপ লোক হল না। প্রধানমন্ত্রী মেদিনীপুরের যে কলেজমাঠে সভা করেছিলেন সেখানেই সভার আয়োজন করেছিল তৃণমুল। মাঠ ভরিয়ে মোদী বাহিনীকে পাল্টা জবাব দেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তৃণমূলের নেতাদের হিসাব যাই হোক না কেন, হাজার দশেক পুলিশ নিয়েও মোদীর সভার সমান লোক হয়নি বলে জানাগেছে।

জঙ্গল মহল থেকে যে সংখ্যক লোকের সমাগম হওয়ার কথা ছিল তার অর্ধেকও হয়নি। হাতে গোনা কয়েকটি বাস গিয়েছিল সভায়। ফলে সভা এক প্রকার ফ্লপ হয়েছে বলে দলের অন্দরেই গুঞ্জন শুরু হয়েছে। সভা ফেরৎ জঙ্গল মহলের এক তৃণমূল কর্মী জানালেন ৫০ হাজারের অনেক কম লোক হয়েছে আজকের সভায়। দলের পক্ষ থেকে এর কারণ হিসেবে চাষের কাজে মানুষের ব্যস্ত থাকার অজুহাত খাড়া করা হয়েছে। সভা মঞ্চ থেকে সেরকমই ঘোষণা করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর সভায় কয়েক লক্ষ মানুষ কলেজ মাঠে জড়ো হয়েছিল। উপচে পড়েছিল মেদিনীপুর শহর। আর আজ পাল্টা সভায় মাঠ না ভরায় হতাশা নেতা কর্মী সবার মধ্যেই। একজন নেতা তো বলেই ফেললেন, সভায় লোক আনার ক্ষেত্রেও গোষ্ঠীবাজী হয়েছে।

কেশপুর সবং এবং পিংলা থেকে ১০ হাজার লোক না এলে সুপার ফ্লপ হতো আজকের সভা। তাছাড়া আজকের সভা ফ্লপ হওয়ায় বিজেপির যে সব নির্বাচিত পঞ্চায়েত সদস্যদের তৃণমূলে যোগদান করানোর কথা ছিল তাও ভেস্তে যায়। ৫৪ জন বিরোধী পঞ্চায়েত সদস্যের এক জনকেও হাজির করাতে পারেনি জেলা নেতারা। সেদিক থেকেও সভার ব্যর্থতা ধরা পড়েছে। সব মিলিয়ে আজকের সভার দৈন্য দশা মোদীর সভাকেই এগিয়ে রাখল বলে রাজ্যের রাজনৈতিক মহল মনে করছে।

Loading...