Loading...

পূর্ব বর্ধমান: রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের উদ্যোগে প্রাথমিক স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের দেওয়া স্কুল ব্যাগকে খোলা বাজারে বিক্রির অভিযোগে তীব্র চাঞ্চল্য দেখা দিল বর্ধমান শহরে। মঙ্গলবার বিকালে বর্ধমান শহরের ৩নং ওয়ার্ড এলাকায়এক ব্যক্তি নীল রংয়ের কিছু ব্যাগ বিক্রি করছিলেন। এই সময় হঠাতই তাঁদের নজরে আসে ব্যাগের ওপরে যে কোম্পানীর লোগো রয়েছে তার নীচে রয়েছে বিশ্ববাংলার লোগো।

এরপর কয়েকটি ব্যাগ তাঁরা পরীক্ষা করে একই বিষয় দেখে খবর দেন বর্ধমান পুরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলার সেলিম খানকে।এই সুযোগেই সেখান থেকে চুপিসারে পালিয়ে যায় ব্যাগ বিক্রেতা। সেলিম খান জানিয়েছে্ন, প্রাথমিক স্কুলের ছেলেমেয়েদের জন্য ওই ব্যাগগুলি প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তর থেকে দেওয়া হয়েছিল। কি করে সেগুলি খোলা বাজারে এল তা তদন্ত হওয়া উচিত। এই ঘটনায় যারা জড়িত তাদের শাস্তির দাবী জানিয়েছেন তিনি।

তিনি জানান, এই ঘটনার পরই তিনি বর্ধমানের স্কুল পরিদর্শককে সমস্ত কিছু জানান। পাশাপাশি বর্ধমান থানাতে খবর দেওয়া হলে পুলিশ প্রায় ৬০টি ব্যাগ উদ্ধার করে নিয়ে যান।এ ব্যাপারে পুর্ব বর্ধমান জেলা স্কুল পরিদর্শক খগেন্দ্রনাথ রায় জানিয়েছেন, এই ঘটনায় একজন এস আইকে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিভাবে স্কুলে বরাদ্দ ব্যাগ খোলা বাজারে এল তা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, ব্যাগ বিক্রেতার বাড়ি বর্ধমান শহরের লক্ষ্মীপুর মাঠ এলাকায়। তার খোঁজে পুলিশ তল্লাশি শুরু করেছে।পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, এই স্কুল ব্যাগগুলি বর্ধমান শহর বা তার লাগোয়া কোনো স্কুলের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছিল। যেহেতু অনেক স্কুলেই মিড ডে মিলের জন্য বেশী সংখ্যক ছাত্র ছাত্রী দেখানো হয়। তাই সেই অনুপাতেই ব্যাগগুলি দেওয়া হয়েছিল। আর সেই উদ্বৃত ব্যাগই অসাধু উপায়ে বাজারে বিক্রি করে দেওয়া হয়েছে।

Loading...